অমর্ত্য বিশ্বাস , কলকাতা : তিলোত্তমা সাক্ষী থেকেছে একটি অসাধারণ সাহিত্য বাসরের। ৭ই সেপ্টেম্বরে কফি হাউসের বইচিত্র সভাঘরে আয়োজিত হল কচি পাতা সাহিত্য উৎসব ২০১৯। আজকের ডিজিটাল যুগে যেখানে ছাপার অক্ষর একটি কঠিন প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হয়েছে, সেই অবস্থায় এই রূপ বই-যাপন উৎসবের আয়োজন অবশ্যই সমাজকে নতুন দিশা দেখাবে বলে মনে করছে পত্রিকা সম্পাদক দীপাঞ্জন দাস । একশতজনেরও অধিক কবির কবিতাপাঠ, আবৃত্তিতে মুখর হওয়ার সাথে এদিন ৭ জন বিশিষ্ট ব্যক্তির হাতে তুলে দেওয়া হল কচিপাতা সাহিত্য সম্মান ২০১৯। পাশাপাশি এদিন প্রকাশীত হল কচিপাতা নিবেদিত পূজা সংখ্যা “নারী নিনাদ”, কবিতা সংকলন “দুই মলাটের কবিসভা” ও অনুগল্প সংকলন “গলি থেকে রাজপথ”। এছাড়াও এদিন প্রকাশিত হল কচি পাতা পরিবারের মূল সংগীত ও ১৩ জন নতুন লেখকের একক বই। সাহিত্য যাপনের এই আসরের আলোচনাচক্রে আলোচিত হল “বর্তমান বাংলা সাহিত্য ও তার অবস্থান”, “সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় ও সাহিত্যের সেকাল-একাল” ও “পুরাণের আলোকে নারী নিনাদ”। দীপাঞ্জন দাসের সম্পাদনায় আয়োজিত এই মহোৎসবে অতিথিরূপে উপস্থিত ছিলেন ঋজুরেখ চক্রবর্তী, অজিতেশ নাগ, রুদ্র গোস্বামী, অলোক বিশ্বাস ও শ্রী সদ্যোজাত। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেছেন বিশিষ্ট বাচিক শিল্পী পূরবী রায়। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের জন্মদিনে এই অনুষ্ঠানের আয়োজনের মাধ্যমে তাকে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করল কচি পাতা পরিবার।