বল্লরী সেন কৃত্তিবাস পুরস্কার পান তাঁর ‘বিহান রাতের বন্দিশ’ কাব্যগ্রন্থের জন্য। ২০১২ থেকে নতুন অনুশীলনে পাড়ি দেওয়া অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষাতত্ত্ব বিভাগে। কৃতধী অধ্যাপক ডঃ অদিতি লাহিড়ী ও ডঃ স্টিফেন পারকিনসনের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতায় বাংলা ভাষায় পর্তুগিজ শব্দঋণ ও সংস্কৃতির পারস্পরিক আদানপ্রদান নিয়ে চর্চার সুযোগ পান। ‘মন খারাপের গায়ে হলুদ’, ‘বিহান রাতের বন্দিশ’, ‘লেফাফা বন্দি দুই তারা’ তাঁর প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ।
বাতাসে গাছেদের শ্বাস এসে লাগে|বাতাসে রোদের জিভ বিনম্র দুর্বার তোমাকে না জেনে কোনো এক শরীর জনপদ ভেবে বসে| তুমি রয়েছো হুড্ খোলা জিপে | দু হাতে জুনিপারের বাস, তোমার ফ্রকের পাড় দিয়ে উদাসীনের হ্রদ বেঁকে আছে | এর নাম আরাভেনু| চা বাগিচার পাশে কফিবীজের মরসুম| শীতের গাঢ় কুয়াশায় বীজের থুতনি ধরে তুমি একটু যেন উলের লাল লাগিয়ে দিলে দুষ্টুমি করে |
রাস্তা ঘনালো উল্কাপাতের মতো আলোয় | গলে যাওয়া হিমে তা দিয়ে তোমার থালাময় সকাল একটা বৃত্ত বুনে দিল| তুমি এবার গরম সুজির মধ্যে আঙুলে সেই স্বাদ নাও| আলোয়ান সরাও , আমি অন্ধ তোমায় কেবল হাঁ করে গিলি |
মন্দরাজি, রাজি নও |
এইটুকু দস্তখত্ |