একলা চলো 

যা কিছু রয়েছে অভিযোগ আফসোস
বাঁশির  এলোমেলো সুরে রঙিন ময়ুর পুচ্ছ।
হয়তো বা একটা  ময়ুর পুচ্ছে গোটা বৃন্দাবন
পথে ঘাটে   চোনা গোবর  মাখন ননী
যমুনা শুকিয়েছে  কদম গাছের ছায়ায়
তুমি আজ একা ।
গরম রক্তে জ্ঞানশূন্য হিতাহিত
বারান্দার  চোখ দুটো পথে পিষে যেতো আকুল অপেক্ষায় ।
ফিরে দেখার  অবকাশ একজনের ও নেই
একই দিনে জন্মে  কি পৃথক নাটিকা
যখন তুমি করে দিয়েছিলে একা
ময়ুরপুচ্ছে  শত রঙে রেঙেছিল যে ক্ষমতা
বৃষ্টিহীন  পেখম অনায়াসে উঠেছিল নেচে
আমি খুঁজেছিলাম অমোঘ আকুলতা ।
জন্মবিধি  যে ছিল অনাথ
তাকে আর যাই হোক
নতুন  করে আর  করতে পারোনি তাকে একা।
সে আজ ও নিরবধি ঘোষিত একা।
এক চাঁদে  আলোকিত হয় যে গভীর অন্ধকার
সূর্যের আলো পৌঁছায় না যেখানে
সেখানে  নিখুঁত শিল্পকর্মে গড়ে ওঠে স্বপ্নময় সংসার।
এই একলা চলো  সংসারে  তোমাকে স্বাগত।