শঙ্খ ঘোষ হতে চাই 

বদ রক্ত জমেছে বুকে
তক্তার দু একটা পেরেক আমার দেহের রক্ত নিরীক্ষণ করতে ব্যাস্ত
আমার নীল মদের গ্লাসে সূর্য্যের ডুবে থাকা
টেবিলের ওপর জমা সিগারেটের ছাইয়ের স্তূপ
হাত ঘড়িটা অনেকদিন আগেই থমকে গেছে
হাঁটুর নীচে ঘর বেঁধেছি
বাড়ির বাইরে একটা পেঁচা ডাকছে অনন্তকাল
ছদ্মবেশী
বহুরূপী
বলতে পারো ..
আমার মাথার চুলের ফাঁকে সূর্য্যের আলো চিরুনি চালিয়ে দেয়
প্রাচীন প্রাসাদের মতো গালে টোল পড়েছে
মদ,  সিগারেট , প্রিয়তমা , যৌবন সবকিছু জীবনের পদে পদে খেলা করছে
আকাশে গাভীর পেটের ভেতর মেঘ জমেছে
পোড়া রুটির গন্ধে পেট ভরে না
শঙ্খ ঘোষ হতে চাই
পারবো কি এতো বাধা অতিক্রম করতে ?
ইদানিং বুকের ভেতরটা উড়োজাহাজের মতো সাঁই সাঁই করে
বেমানান সমাজ
একটা ভোরের অপেক্ষা , শঙ্খ ধ্বনির অপেক্ষা॥