সময়

এভাবেই পথ চলা অনিমিখে,
কুয়াশার ধূসর আলিঙ্গন, পাহাড়ের উচ্চতম শৃঙ্গ
থেকে ভেসে আশা বজ্রমন্দ্র আওয়াজ,
আর সমুদ্রের সুনীল মায়াবী নির্ঝর উচ্ছলতায়;

দেশ থেকে দেশান্তরে, পরিযায়ীরা  ঝাঁকে ঝাঁকে
ভেসে যায়, মাটির থেকে অনেক দূরে, উষ্ণতা আর স্বচ্ছলতায়।

হাসি-কান্নারকানাভরা পাত্র, কখন গড়িয়ে পড়ে আচম্বিতে-
পূর্ণ হয় প্রাণের  ঘড়া, নির্মোহ আর নীরবতায়;

সময়ের উৎস থেকে বের হওয়া প্রাচীন অস্থির ঘূর্ণাবর্ত –
এক আঁচলা মুহূর্ত তুলে নি আমি –
অনুভব করি যা কিছু অব্যয়;

চেতনারা সব চলমান, সময়রা স্থির তন্ময়।