সংঘাত

ঝাঁপ দিয়েছি নিশ্চিত শূন্যের শরীরে…
দু’হাতে ধরেছি ছায়া, সমান্তরাল উদারতা ।
তীক্ষ্ম তরবারি দিয়ে বাতাস কেটেছি, ভয়ে ভয়ে
অতিক্রান্ত স্তর থেকে গিঁথে নিচ্ছি অনু, পরমানু
বায়বীয় শিথিলতা ক্রমশঃ প্রখর।
শীত ছুঁয়ে শুয়ে যাওয়া নির্বিকার চোখে
সযত্নে এঁকেছি মৃত বরফের শোক।
আশরীর আবেগের চতুরঙ্গে ভেসে যেতে যেতে …

মাটি থেকে দূরত্বেরা ক্রমহ্রাসমান ।

এবার চরম স্থিতি লিখে যাব সমতল জুড়ে।