ভালোবাসার কারিগর

মরতে বসা ফুলগাছগুলো আর ধুলোমাখা শুকনো পাতায় অপরিনত কিছু বৃষ্টির ছোঁয়া,ওরা শিল্প গড়েছে। শিল্পের কারিগর আমিও…ভালোবাসা জোড়া দিতে চাই বারংবার
ভাঙ্গা জানালার ফাঁক দিয়ে রামধনু এসে লুটোপুটি খায়…মদের টেবিলে পিপড়েগুলো বিদ্রোহী মিছিল করে,
টেবিল ফ্যানটা কিছু না বলেই থেমে গেছে। এখন লেপের তলায় শুধু ভালোবাসার আর্তনাদ,ফি বছরই এটা মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে…মা বলেন,তোকে অম্বলে ধরেছে,হ্যাঁ,না পাওয়ার অম্বল।
না খাওয়া খাবারে শ্যাওলা ডাকছে মাছিগুলোও বেহায়া, ভালোবাসার নির্যাস ওদের কামনায়.. কোনোভাবেই ভাঙ্গা কাঁচগুলোতে চেহারা জোড়া লাগছেনা।
ঠিক যেমন তোমার প্রাপ্তিগুলোও আমার পিছু ছাড়ছেনা..
সকালের চায়ের কাপে প্রতিদিন যেগুলো আমি লেরোবিস্কুটের সঙ্গে আত্মস্থ করি
আর নিজেকে বলি,যা..আকাশ গিলে খা,
আমার ছড়ার মতো জীবন মুছে যা…যা ধুলোয় মিশে যা,
আমার কালো আত্মা কাদামাটি মাখা..
নাঃ, এবারেও আর ভালোবাসা জোড়া দিতে পারলাম না।
Facebook Comments