বিজয়া

রাস্তাটা এইখানে এসে থমকে দাঁড়ায়, মা।
ডানদিক থেকে এগিয়ে আসে রঙচঙে মুখোশ
আর বাঁদিকে বড়ি আর থোড়ের নামচা।
সামনে রাস্তা আটকে পড়ে থাকে কবেকার বিসর্জিতা চিন্ময়ী মা।
তেলচিটে অসাড় হাতটা টেনে আমি নাড়ুর গন্ধ শুঁকি।
চোখ বন্ধ করে বলি
“শুভ বিজয়া, শুভ বিজয়া, শুভ বিজয়া…”