বাজও আমায় বাজাও

পৃথিবীকে বলেছিলুম, জন্ম যখন দিলে
ধন,রত্ন,ঘর,বাড়ি না দাও শান্তি দিও।
পৃথিবী হেসে বলে ছিল, তোর মধ্যেই আছে শান্তি, অশান্তি
সারা জীবন সুর খুঁজে যাবি আর বাজবি
বাজতে বাজতে একাত্ম হয়ে যাবি প্রকৃতির সাথে
দেখবি শান্তি ভিক্ষা চাইতে হবে না
সেই থেকে বাজছি,কখনও ভৈরবীতে,কখনও ঝিঁঝিঁটে,ইমনে,জয়জয়ন্তীতে,কখনও মালকোষে
ক্রমাগত পাখিদের গান, নদীর সুর, মৃত্যুর দুঃখ, ঝগড়ার কোলাহল, ক্ষমতার অহংকার, না পাওয়ার কান্না
সবাইকে বলেছি,বাজাও আমায় বাজাও আরও বেশি করে বাজাও
বাজতে বাজতে বুঝতেই পারি না কীভাবে কেটে গেল
জীবনের এতগুলো দিন
কখনও আলাপে, কখনও বন্দীশে,কখনও ঝালায়।