সত‍্যজিৎ স্মরনে

কালকে ছিল শ্রমিক দিবস,আজকে জন্মদিন,
সিনেমা জগতের মহারাজা সত‍্যজিত করেছিলেন জন্মগ্রহণ।
শ্রমজীবী মানুষের আন্দোলনে গড়ে উঠেছিল ইতিহাস,
শ্রমিকদের আত্মত‍্যাগ কে সম্মান করে পালিত হয় মে দিবস।
দ্বিতীয় দিনে মহারাজাকে করা হয় স্মরণ,
শতবর্ষ পূর্তি উপলক্ষ‍্যে দিলাম তোমায় এককোটি সেলাম।
সোনা দিয়ে মোড়ানো ছিল তোমার অতুলনীয় মস্তিষ্ক,
তোমার লেখনীতে হয়েছিল অনুপ্রাণিত কিশোর কিশোরী থেকে বয়স্ক।
কালজয়ী চলচিত্র নির্দেশনায় গড়েছিলে আলাদাই এক নজির,
যেখানে অন‍্যায় সেখানেই ফেলুদা আ‍্যন্ড কোং হাজির।
একাকিনী চারুলতা থেকে ছোট্ট অপুর সংসার সংগ্রাম,
অপূর্ব ভাবে ফুটিয়েছ তুমি,মহারাজা তোমাকে সেলাম।
অসারাধারন কল্পনা করেছ তুমি রহস‍্যের সাথে কল্পবিজ্ঞানের মিশেলে,
প্রফেসর শঙ্কুর রাশভারী ভাবনাচিন্তায় নকুড়বাবু সবসময় দেন জল ঢেলে।
আরো কত বিখ‍্যাত লেখা,সাথে চলচিত্র জনগনকে দিয়েছ তুমি উপহার,
অন‍্যায়ের বিরুদ্ধে করোনি আপোষ,লেখার দ্বারা করেছ সংহার।
দাদা সাহেব ফালকে থেকে ভারত রত্ন,কি নেই তোমার ওই ঝুলিতে,
তোমার মত অসাধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার এই সমগ্র ভুভারতে।
থাকত যদি আমার কাছে গুপি গাইন বাঘা বাইনের ভূত রাজা,
তোমার পূণর্জন্মের বর নিতাম চেয়ে,আর দুষ্টু লোকেদের দিতাম সাজা।
কিন্তু হায়,আর যে তা হবার নয়,কোনদিন গাইবে না আর সুমধুর কন্ঠে গান,
বাচ্চা থেকে বয়স্ক,সবার অত্যন্ত প্রিয় তুমি,আজ এই শুভদিনে তোমার শ্রীচরণে শতকোটি প্রণাম।