অনন্ত – অন্তরা

আপনার বলা শেষ?
আপাতত শেষ-
তাহলে শুনুন আপনি যত মিষ্টি করে আমাকে লিখুন না কেন- কথাগুলি পড়তে ভালো লাগবে আমার, প্রশংসা কার না শুনতে ভালো লাগে বলুন? আমার ও লাগছে কিন্তু আপনি যা ভেবে বসে আছেন এটা কোনদিন এই অচিনপুরীতে হবে না । তবে হ্যাঁ আপনাকে আমি অনেক শক্ত কথা শুনিয়েছি সেইজন্য আমি আন্তরিক ভাবে দুঃখিত । প্লিজ আমাকে আর বিরক্ত করবেন না ।
আপনি ঠিকই বলেছিলেন- আমি সব দায় মাথা পেতে নিলেও আমি ব্যক্তিগত ভাবে তার তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাই । তবে আমি যা আপনার মাঝে দেখতে পেয়েছি সে দেখা আমার ভুল হতে পারে না ।
কী দেখেছেন আমার মধ্যে আপনি? আমি এমন কী সুন্দরী বা গুনী মহারতি বলুন? আপনি তো আমাকে এখন দেখেনি, আমি ভালো কি মন্দ না কি খারাপ কিছুই জানেন না তাহলে কেন এই সস্তা অনুভূতি? আমাকে এ-ও বিশ্বাস করতে হবে এই জামানায় চন্ডিদাস খুঁজে পাওয়া যায় ! শুনুন আমি একালের হলেও মনে প্রাণে অস্তিত্বে বড় সেকালের । আমি সস্তায় বিশ্বাসি নই ।
আমি জানি বুঝি আমার অনুমান আমার বিশ্বাস, আমার স্বপ্ন জুড়ে ধ্যান সেও সেকালি ।
তাই বুঝি? শুনুন পরে কিন্তু পস্তাবেন আমি বললাম!
কেন এই কথা বলছেন? আমি সব মেনে নেব হৃদয়ের কারণে ।
তাহলে শুনুন নাম আমার অন্তরা একদম ঠিক- আগে বুঝলে নামটি পালটিয়ে দিতাম- আমি সুন্দরী নই, নই ফর্সা, লম্বাও নই দেখতে খানিকটা রোগা কুৎসিত, আপনি কল্পনায় যে প্রেমে আপ্লুত হচ্ছেন তার সঙ্গে মোটেও যায় না ।
আমি হৃদয় সর্বস্ব মানুষ আমার মন বলে আপনিই আমার সেই মানুষ যাকে আমি জীবন ধরে খুঁজে ফিরছি- আপনি যা-ই থাকুন না কেন, আপনার হৃদয়টা আমার অন্তর দৃষ্টি ছুঁয়ে গিয়েছে সেই প্রথম থেকে, তাই যে কোন মূল্যে এই বাজি আমি জিতে নিতে চাই ।
হি হি হি – হাসালেন ! আপনি দেখছি বড্ড পাগল আছেন, কিন্তু পাগলামি দিয়ে জীবন সংসার বা বাস্তবতায় বেমানান শুধু কল্পনার রাজ্যে ভাসা যা্য অন্যকিছু নয় । আমার বড্ড ঘুম পাচ্ছে আমি আর থাকতে পারছি না – এবার আমি যাব । আপনি ভালো থাকবেন – শুভ রাত্রি