১| মাথা উঁচু রাখো

ভাবছো কেনো সবাই সমান
এই সমাজের বুকে,
বুঝতে পারবে আসলটা কি
একটু দেখো ঢুকে।
এমন কাজটা করার জন্য
ভাবো নিজে মন্দ,
তার কারণেই তোমার মনে
চলতে থাকে দ্বন্দ্ব।
নারী তুমি তোমার শ্রমটা
করো কারো জন্য,
মনে রেখো সেই অর্থতেই
হচ্ছে তারা ধন্য।
লজ্জা ঘৃণা অার করো না
মাথা উঁচু রাখো,
নিজের কাজে গর্ব করেই
নির্ভয়েতে থাকো।
মানুষ তুমি নারীর রূপেই
চিন্তা ফেলে হাসো,
নিজেকে তাই একটু বেশি
আগে ভালোবাসো।

২| খেলা হবে

চলো সবাই এগিয়ে এসো
খেলা হবে,
প্রস্তুত হয়ে নিজের মতো
সদাই রবে।
নতুন করে সবার জন্যই
খেলা হবে,
খেলার জন্য শেষ পর্যন্ত
থেকো সবে।
মনে রাখবে ভালোবেসে
খেলা হবে,
সবাই খেললে সফল মোরা
হবো তবে।
হিংসা বিদ্বেষ দূরে রেখেই
খেলা হবে,
এই খেলাটা খেলবো মিলে
আসো যবে।
দেখে নিও খেলার মতোই
খেলা হবে,
হারো জেতো মনটা খুলে
পাশে রবে।
সবার ভালো করার জন্যই
খেলা হবে,
হোক না খেলা মিলেমিশে
সুন্দর ভবে।

৩| আমি আসছি

আমি আসছি ভবে দেখতে তোদেরই মাঝে
শুনতে কি পাস তার ডঙ্কা দূরে ওই বাজে।
নয় মাস বদ্ধ মাতৃ গর্ভে অপেক্ষার পরে
আসবোই ভবে মনে রাখ ঈশ্বরের বরে।
শুনছি আমি সব ঘটনা চুপ করে থেকে
কেননা আছি যে যত্ন আর স্নেহ ভরা ঢেকে।
দেখিনি কিছুই বুঝে গেছি সব অনুভবে
করিনি কোনোই প্রতিবাদ জেনে নিস সবে।
এসেই কর্মে দেখিয়ে দেবো নহে শুধু মুখে
যেখানেই থাকিস না কেনো তোরা সব ঢুকে।
সাবধান হয়ে যাবি আগে ভালো যদি চাস
ভয় থাকে কিছু মনে সব ছেড়ে দিয়ে যাস।
জঞ্জালগুলো সাফাই করা হবে মোর কাজ
সমাজের থেকে অন্যায়ের বন্ধ হবে রাজ।
আমি দুরন্ত আমি অশান্ত আমি এক সেনা
জেনে নিয়ে মেনে নিস সব নই কারো কেনা।

৪| শহীদের দান

পাক বাহিনীরা শত অত্যাচার করে
ধর্ষণ লুন্ঠন সহে কষ্টে কাটে ঘরে।
সবার মনে ভাবনা কবে বন্ধ হবে
কেনো আমরা এত কষ্টে আছি ভবে?
জাতির পিতা মুজিব দিলেন ভাষণ
মানবো না পাকেদের অারতো শাসন।
সবাই এগিয়ে যাও যুদ্ধ করো গিয়ে
দেশকে স্বাধীন করে আগে এসো নিয়ে।
দীর্ঘ নয়টা মাসের যুদ্ধ শেষ হলে
স্বাধীনতা দেশে ফিরে এলো সব চলে।
ভারতের দান আছে এই যুদ্ধে ভাই
মনে রাখবো সদাই ভারতকে তাই।
দেশের বীর ছেলেরা দিলো রক্ত প্রাণ
ওদের জন্য পেলাম স্বাধীনের ঘ্রাণ।
এখন নিজের ইচ্ছে মতো ভাষা বলি
যেমন খুশি তেমন ভাবে পথে চলি।
ডিসেম্বরটা খুশির মাস বলে জানি
দেশ হলো শহীদের দান সেটা মানি।
চলো সবাই দেশটা ভাল করে গড়ি
গরিব থাকুক সুখে তার হাল ধরি।